৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি



আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর

কুশিয়ারা ভিউ ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১

আজ মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। খুশি, আনন্দ আর উচ্ছ্বাসের দিন। কিন্তু করোনার মহামারির কারণে গত দুই ঈদের মত নানা বিধিনিষেধ ও শঙ্কার মধ্যে ঈদ উদযাপন করবে দেশবাসী। ৩০ দিন সিয়াম সাধনার পর মুসলিম সম্প্রদায় আজ ঈদ উদযাপন করছেন।

গত বুধবার দেশের কোথাও পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে আজ শুক্রবার (১৪ মে) উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর।

‘রমজানের ওই রোজার শেষে এল খুশীর ঈদ’ -এই সুরের লহরী এখন ভেসে বেড়াচ্ছে আকাশ-বাতাস মন্দ্রিত করে। মনপ্রাণ উছলে উঠছে ঈদের আনন্দ-রোশনাইয়ে। পবিত্র মাহে রমজানের সিয়াম-সাধনা শেষে খুশির সওগাত নিয়ে এলো ঈদুল ফিতর। ত্রিশ রোজা পূর্ণ হলো। সন্ধ্যায় পশ্চিমাকাশে শাওয়ালের নতুন বাঁকা চাঁদ অবলোকন করে ঘরে ঘরে মানুষ আনন্দ উদ্বেলিত।

আরও পড়ুনঃ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপনের আহ্বান রাষ্ট্রপতির

ঈদ মানেই আনন্দ, নতুন জামা আর আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুদের মিলনমেলা। হৈ-হুল্লো, ঘুরে বেড়ানো, খাওয়া-দাওয়া আর আড্ডায় মেতে ওঠা। এ উৎসবে মুসলমানরা ঈদগাহে কোলাকুলি করে থাকেন। এছাড়া সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি ও ভালোবাসার বন্ধনে সবাইকে নতুন করে আবদ্ধ করাও ঈদের অন্যতম অর্থ। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে এবারের ঈদ আনন্দের সবকিছুতেই ভাটা পড়েছে।

সারাদেশে যথাযোগ্য ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও উত্সাহ-উদ্দীপনায় উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। ঈদুল ফিতরের নামাযে যাওয়ার আগে কিছু খাওয়া এবং ঈদুল আযহার নামাযের পরে খাওয়া মুস্তাহাব। ঈদুল ফিতরের নামাযে যাওয়ার আগে কিছু খেজুর খেয়ে যাওয়া অন্যতম একটি শিষ্টাচার। যেহেতু সহিহ বুখারীতে আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত হয়েছে যে, তিনি বলেন: রাসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কয়েকটি খেজুর খেয়ে ঈদগাহে যেতেন…। তিনি বেজোড় সংখ্যক খেজুর খেতেন।

[সহিহ বুখারী (৯৫৩)] নামাযে যাওয়ার আগে খাওয়া মুস্তাহাব এই কারণে যাতে করে সেই দিনে রোযা রাখা নিষিদ্ধ হওয়ার উপর তাগিদ দেওয়া যায় এবং পানাহার করা ও রোযা সমাপ্তির ঘোষণা দেওয়া যায়।

ঈদ উল ফিতর আরবি শব্দ। ঈদ’ অর্থ আনন্দ, উত্সব, খুশি। আর ফিতর অর্থ ভাঙা, চিড়, ভাঙন। ঈদুল ফিতর অর্থ হলো রোজা ভাঙার পর্ব বা উত্সব। ঈদের শাব্দিক অর্থ হলো ‘বারবার ফিরে আসা’।এ দিনটি বারবার ফিরে আসে বলে এর নামকরণ হয়েছে ঈদ। আল্লাহ তা‘আলা এদিনে তার বান্দাকে নি‘আমাত ও অনুগ্রহ দ্বারা বারবার ধন্য করে থাকেন, বারবার ইহসান করেন।

এই দিনে ধনি-গরিব, বাদশাহ-ফকির নির্বিশেষে সব মুসলমান এক কাতারে ঈদের নামাজ আদায় করেন,একে অপরকে আলিঙ্গন করেন। পরস্পর বলবেন, ‘তাক্বাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকুম। অর্থ, ‘আল্লাহ তাআলা আমাদের ও আপনার নেকা আমল তথা ভাল কাজগুলো কবুল করুন।’ কিংবা ঈদ মোবারক কিংবা এ ধরণের অন্য যে কোন বৈধ ভাষায় মঙ্গল কামনা করা। ঈদের শিস্টাচার হলো, ঈদ উপলক্ষে সুন্দর পোশাকাদি পরিধান করা,নামাযের জন্য এক রাস্তা দিয়ে যাওয়া অন্য রাস্তা দিয়ে ফেরত আসা,ঈদের দিনে তাকবীর দেওয়া।

আরও পড়ুনঃ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

অদৃশ্য এক ভাইরাসে পুরো বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও থমকে গেছে স্বাভাবিক জীবনযাপন। এক কথায় বলতে গেলে এবারও ঈদ উৎসব আনন্দ-খুশির ডালায় নয়, এসেছে শঙ্কা-অনিশ্চয়তার বার্তা নিয়ে।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। এক শুভেচ্ছা বার্তায়, রাষ্ট্রপতি করোনা পরিস্থিতিতে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উৎসব উদযাপনের আহবান জানান। মহামারির কারণে গতবারের মতো এবারও ঈদে পরিবারের সদস্যদের সময় কাটাবেন রাষ্ট্রপতি।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) সন্ধ্যায় ঈদুল ফিতর উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সবাইকে করোনার ভয়াবহতার বিষয়ে আবারও সতর্ক করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপনের অনুরোধ জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ঈদ উদযাপন করবো, তবে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে। কোনওভাবেই এই ঈদ উদযাপন যাতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির উপলক্ষ হয়ে না ওঠে, সেদিকে আমাদের খেয়াল রাখতে হবে।

এবার বাড়ি ফেরার চিত্রও বদলে গেছে। যেখানে ঈদকে কেন্দ্র করে বাড়ি ফেরা মানুষের জন্য থাকতো যানবাহনগুলোর বাড়তি আয়োজন। এবার সংক্রমণ রোধে বন্ধ ছিল যোগযোগ। তারপরও বাধা উপেক্ষা করেই অনেকেই ছুটেছেন গ্রামের পথে। কখনও পণ্যবাহী ট্রাকে করে, কখনও শিমুলিয়া ঘাটের নিষেধাজ্ঞা ভেঙে মানুষ খালি ছুটছে। ফেরি-নৌকা যেদিকে দু চোখ যায় মানুষ আর মানুষ। অতিরিক্ত ভিড়, দুর্ঘটনায় ঘটেছে প্রাণহানি।

শহরের মানুষকে গ্রামে যেতে বিধি নিষেধ দিয়েও আটকানো যায়নি। ফলে ব্যস্ততম নগরীতে সুনসান নীরবতা বিরাজ করছে। ঢাকা এখন ফাঁকা। রাজধানীতে নেই যানজট, যান্ত্রিক শব্দ, রাস্তাঘাটে মানুষের উপচে পড়া ভিড়।

ঈদের দিন বৃষ্টির হওয়ার আভাষ জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। তারা জানিয়েছে, ঈদের দিন  সকালে দেশের বেশিরভাগ এলাকায় বৃষ্টি থাকতে পারে। রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, সিলেট বরিশাল, ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। একইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বৃষ্টি হতে পারে। বিক্ষিপ্তভাবে কোথাও কোথাও হতে পারে শিলাবৃষ্টিও।

জাতীয় ঈদগাহে এবারও ঈদের নামাজ হচ্ছে না। যেখানে রাষ্ট্রপতির অংশ নিতেন।  বঙ্গভবনের দরবার হলে ঈদের নামাজ পড়বেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। এবারের ঈদুল ফিতরে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে পাঁচটি ঈদের নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। করোনা মহামারিকে সামনে রেখে খুব সতর্কতার সঙ্গে এই জামাতগুলো অনুষ্ঠিত হবে। এরইমধ্যে ঈদ জামাতের জন্য বড় ধরনের প্রস্তুতি শেষ করা হয়েছে।

ঈদে শিশুদের নিয়ে বাবা মায়ের গন্তব্য বিনোদন কেন্দ্র । কিন্তু মহামারির কারণে গতবারের মতো এবারও বিনোদন কেন্দ্রগুলো বন্ধ রয়েছে। পরিবার পরিজনের সঙ্গে বাসায় ঈদের আনন্দ পালনের আহ্বান জানিয়েছে সরকার। ফলে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে মানুষের  আনন্দঘন মুহুর্ত দেখা যাবে না বিগত দিনের মতো।

এবারও দেশে বিভিন্ন জেলায় সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে এক দিন আগেই পবিত্র ঈদুল ফিতরের  উৎযাপন হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ, ভোলা, টাঙ্গাইল, চাঁদপুরের বিভিন্ন এলাকার মানুষ সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদ পালন করেন।

কুশিয়ারাভিউ২৪ডটকম/১৪ মে,২০২১/খালেদ






এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ





















© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
themesbazar_brekingnews1*5k