১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২০শে রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি



এটি একটি সড়ক!

কুশিয়ারা ভিউ ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৭ আগস্ট, ২০২১

বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের আধা কিলোমিটার আর বাকি সাড়ে ৭ কিলোমিটার সড়কটি কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নে অবস্থিত।

যে সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন তিন ইউনিয়ন ইদগড়, বাইশারী ও গর্জনিয়ার হাজারো মানুষ চলাচল করে থাকেন। বর্তমানে সড়কটির এমন অবস্থায় পরিণত হয়েছে। যা দেখলে মনে হবে এটি কি সড়ক! না অন্য কিছু?

দীর্ঘ দেড়যুগ আগে সড়কটি ব্রিক সলিন দ্বারা উন্নয়ন করা হয়। আর সে থেকে আজ পর্যন্ত কোনো ধরনের মেরামত বা পুনর্নির্মাণ করা হয়নি। যার ফলে হাজারো মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই।

এসব কথা জনালেন স্থানীয় বাসিন্দা আবু বক্কর, নুরুল আমিন, শাহ আলমসহ অনেকেই।

স্থানীয় বাসিন্দারা আরও জানান, গত দুই বছর আগে হাজারো মানুষের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম বাইশারী গর্জনিয়া সড়ক নিয়ে মেরামতের দাবিতে শত শত লোকজন বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন। কিন্তু তাও কোনো ধরনের কাজ হয়নি। তাছাড়া সড়কটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ গণমাধ্যমে বেশ কয়েকবার সচিত্র প্রতিবেদন ও প্রকাশিত হয়েছে। তাও কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ হয়নি।

বর্তমানে সড়কটির একাধিক স্থানে যেমন বস্তুবিল ইস্কান্দারের বাড়ির পার্শ্ববর্তী, থোয়াইংগাবাজারের পার্শে, আদর্শ শিক্ষা নিকেতন সংলগ্ন, থীমছড়ি বাজারের উত্তর ও দক্ষিণ পার্শ্বে, শাহ মোহাম্মদের পাড়াসহ অসংখ্য স্থানে খান খন্দসহ পাহাড়ি ছড়ায় পরিণত হয়েছে। ওই সড়ক দিয়ে গাড়ি চলাচল করতে গিয়ে সকল গাড়ি অকেজো হয়ে পড়েছে বলে জানালেন বাইশারী গর্জনিয়া সড়কের দায়িত্বে নিয়োজিত সিএনজি চালক সমিতির সভাপতি মো. শহিদুল্লাহ।

এছাড়া সড়কের বেহাল দশার কারনে মুমূর্য
রোগীকে অনেক সময় কাঁধে বহন করে নিতে হয়। এ ছাড়া যদিওবা টমটম, সিএনজি করে কেউ যাতায়াত করে থাকে তাহলে সে ও রুম হয়ে যায় বলে সিএনজির যাত্রী মো. জাকের হোসেন।

সরেজমিন এই প্রতিবেদক বাইশারী গর্জনিয়া সড়ক ঘুরে দেখা যায়, সড়কের বেহাল অবস্থা বাদই দিলাম । দীর্ঘ দেড়যুণ কালভাট ব্রিজ, পুল, নালা নর্দমারও কোনো ধরনের দৃশ্যমান উন্নয়ন হয়নি।

স্থানীয় লোকজনের দাবি বর্তমান সরকার সারা দেশে উন্নয়ন করেছেন। কিন্তু রামু উপজেলার এই ইউনিয়নের মানুষ কেন এত অবহেলিত। জনপ্রতিনিধিরা কি সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে এসব বিষয়ে অবগত করেননা এ প্রশ্ন আম জনতার।

এ বিষয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল জব্বার জানান, এ সড়কের বিষয় নিয়ে তিনি চেয়ারম্যানসহ ইউএনওকে অবগত করছেন। তিনি সরেজমিন পরিদর্শন করবেন বলে জানান।

তাছাড়া আবদুল জব্বার নিজের তহবিল থেকে গত কিছু দিন আগে শাহ মোহাম্মদের পাড়া এলাকায় সড়কের উপর বালু ও ইট দিয়ে মেরামত করে চলাচলের উপযোগী করে দিয়েছেন।

সড়কের বিষয় নিয়ে গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ছৈয়দ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, এই সড়কটি গত এক বছর আগে টেন্ডার হয়েছে। সড়কের কিছু অংশ গত এক বছর আগে কার্পেটিং দ্বারা উন্নয়ন করা হয়েছে। বাকিটা হয়ে যাবে।

কুশিয়ারাভিউ২৪ডটকম/৭ আগস্ট, ২০২১/জসিম






এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ





















© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
themesbazar_brekingnews1*5k