২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি



এলপিএল চ্যাম্পিয়ন থিসারার জাফনা

কুশিয়ারা ভিউ ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২১

লক্ষ্য ২০২ রানের। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারেই এলো ৮১ রান। তবু পারল না গল গ্ল্যাডিয়েটর্স। তাদের হারিয়ে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের (এলপিএল) দ্বিতীয় আসরের শিরোপা জিতল থিসারা পেরেরার জাফনা কিংস।

হাম্বানটোটায় গত বৃহস্পতিবার রাতের ফাইনালে জাফনার জয় ২৩ রানে। প্রথম দুই আসরের ফাইনালেই গলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হলো তারা।

আভিশকা ফার্নান্দো ও টম কোলার-ক্যাডমোরের ফিফটির সঙ্গে শোয়েব মালিক ও থিসারার দুটি ক্যামিও ইনিংস বড় পুঁজি এনে দেয় জাফনাকে।

আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান ওপেনার আভিশকা এবার ৪১ বলে করেন ৬৩ রান। তিন নম্বরে ৪১ বলে ৫৭ রানে অপরাজিত থাকেন কোলার-ক্যাডমোর। গলের দুই ওপেনার ছাড়া আর কেউ বলার মতো কিছু করতে পারেননি। দানুশকা গুনাথিলাকা ২১ বলে ৫৪ ও কুসল মেন্ডিস ২৮ বলে করেন ৩৯ রান। মাহিন্দা রাজাপাকসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে আভিশকা ও রহমানউল্লাহ গুরবাজের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় জাফনা। প্রথম পাঁচ ওভারে দুজনে তোলেন ৫৬ রান।

পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে আক্রমণে এসে শুরুর জুটি ভাঙেন ইংলিশ স্পিনার সামিত প্যাটেল। ছক্কায় ওড়ানোর চেষ্টায় ক্যাচ দেন আফগান ব্যাটসম্যান গুরবাজ (১৮ বলে ৩৫)। কোলার-ক্যাডমোরের সঙ্গে দলকে এগিয়ে নেন আভিশকা। ৩১ বলে ফিফটি স্পর্শ করেন তিনি। এরপর অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেননি। নুয়ান থুশারার স্লোয়ারে ক্যাচ দিয়ে শেষ হয় তার ৮ চার ও ২ ছক্কায় গড়া ইনিংস। কোলার-ক্যাডমোর ফিফটি করেন ৩৮ বলে। সঙ্গে মালিকের ১১ বলে ২৩ ও থিসারার ৯ বলে অপরাজিত ১৭ রানের ইনিংসে দুইশ ছাড়ায় জাফনার সংগ্রহ। শেষ ওভারে আসে ১৯ রান।

রান তাড়ায় শুরু থেকে ঝড় তোলেন গুনাথিলাকা। প্রথম ওভারে ছক্কা মারেন মাহিশ থিকশানাকে। এই রহস্য স্পিনারের পরের ওভারে চার বলের মধ্যে দুটি ছক্কার সঙ্গে চার মারেন একটি। পরের ওভারে সুরঙ্গা লাকমালকে তিনটি বাউন্ডারি। ফিফটি স্পর্শ করেন গুনাথিলাকা মাত্র ১৯ বলে। পঞ্চম ওভারে আক্রমণে এসে পরপর দুই বলে গুনাথিলাকা ও বেন ডাঙ্ককে ফিরিয়ে দেন ভানিন্দু হাসারাঙ্গা। ক্যাচ দেন দুজনই।

তারপরও পাওয়ার প্লেতে গলের রান ছিল ২ উইকেটে ৮১। মোহাম্মদ হাফিজ ও ভানুকা রাজাপাকসে তেমন কিছু করতে পারেননি। আশা হয়ে টিকে ছিলেন মেন্ডিস কিন্তু ৩৯ রান করে তিনি রান আউটে বিদায় নিলে আর পেরে ওঠেনি গল। হাসারাঙ্গা ও চতুরঙ্গা ডি সিলভা নেন ২টি করে উইকেট। পাকিস্তানের অলরাউন্ডার মালিক উইকেট না পেলেও তিন ওভারে দেন স্রেফ ১২ রান। ম্যাচ সেরার সঙ্গে টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও জেতেন আভিশকা।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ











All Bangla Newspapers



অনলাইনে বাংলাদেশের সকল পত্রিকা পড়ুন…
















© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত  ২০২২ কপিরাইট © কুশিয়ারা ভিউ টোয়েন্টিফোর ডটকম
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
themesbazar_brekingnews1*5k