৪ঠা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ১৮ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি



কালভার্ট ভেঙে দুর্ভোগে ৫ গ্রামের মানুষ,বাঁশের সাঁকো বানিয়ে পারাপার

কুশিয়ারা ভিউ ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৭ জুন, ২০২১
ছবি সংগৃহীত


চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের আবদুল গণি সড়কের ঝুঁকিপূর্ণ পুরাতন স্নাব কালভার্টটি ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

বিকল্প সড়ক না থাকায় ততক্ষণাৎ বাঁশের সাঁকো বানিয়ে ঝুঁকি নিয়েই চলছে পারাপার।

স্থানীয় সূত্র জানায়, স্নাব কালভার্টটি অনেক আগেই জরাজীর্ণ হয়ে বেহাল দশায় ছিল।



স্থানীয়রা সাব কালভার্টটিকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করলেও নতুন করে এটি নির্মাণ করা হয়নি। ফলে বিকল্প কোনো সড়ক না থাকায় ওই স্নাব কালভার্টের উপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়েই যাতায়াত করতে হয়েছে জনসাধারণকে।

কালভার্টটি দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে অবস্থিত হলেও প্রায় ৫ গ্রামের যাতায়াতের একমাত্র সড়ক হিসেবে বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

এলাকাবাসীর অভিযোগ দুই বছর ধরে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে কালভার্টটি। বিভিন্ন পত্রিকায় লেখালেখি এবং সংশ্লিষ্ট উপজেলা কর্মকর্তাদের মাপজোক হলেও পুনর্নির্মাণে যেন দীর্ঘসূত্রতা কালভার্টের।

সরেজমিন দেখা গেছে, অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণভাবে বাঁশের সাঁকো দিয়ে জনসাধারণ চলাচল করছে। যাত্রী ও মালবাহী ভারী কোনো যানবাহন এ সড়কে চলাচল করতে না পারায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সংশ্লিষ্টদের।

স্নাব ভেঙে বিক্ষিপ্তভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকায় বাঁশের সাঁকো ছিটকে যেকোনো মুহূর্তে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। এ কথা বলে এলাকাবাসী জরুরি ভিত্তিতে স্নাব কালভার্টটি নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আহমদ সৈয়দ তালুকদার বলেন, ঝুঁকিপূর্ণটি কালভার্ট নির্মাণের জন্য ইতোমধ্যে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। লকডাউনের কারণে ধীরগতি হচ্ছে।

গুরুত্বপূর্ণ স্নাব কালভার্টটি ভেঙে পড়ায় সড়কের যাতায়াতকারীরা অবর্ণনীয় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। তিনি দ্রুতগতিতে স্নাব কালভাটটি পুনরায় নির্মাণের দাবি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবহিত করবেন বলে জানান।

কুশিয়ারাভিউ২৪ডটকম/৭ জুন,২০২১/নাহিদ






এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ





















© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
themesbazar_brekingnews1*5k