১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২৫শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি



তাহিরপুরের টাকাটুকিয়ায় হিন্দু বাড়িতে হামলা

কাজল চন্দ্র কর, সুনামগঞ্জ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২১

ইভটিজিংয়ের সামাজিক শাস্তির জের ধরে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের টাকাটুকিয়া গ্রামে এক হিন্দু বাড়িতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়েছে পাশ্ববর্তী টুকেরগাঁও গ্রামের একদল বখাটে। গতকাল বুধবার (১৪ই এপ্রিল) দুপুর দেড়টায় দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের টাকাটুকিয়া গ্রামের দেবেন্দ্র বর্মণের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। হামলায় বৃদ্ধ ও নারীসহ ৮ জন আহত হন।

হামলার ঘটনায় গতকাল (১৪ই এপ্রিল) রাতেই টুকেরগাঁও গ্রামের বিল্লাল মিয়াসহ ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ১০/১২ জনের নামে তাহিরপুর থানায় মামলা দায়ের করেন আহত দেবেন্দ্র বর্মণের ছেলে শ্যামল বর্মন। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে এজাহারভুক্ত দুই আসামি টুকেরগাঁও গ্রামের মৃত ফালু মিয়ার ছেলে সিরাজ মিয়া (৪৫) ও শহীদ মিয়াকে (৫০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ তরফদার।

পুলিশ জানায়, টাকাটুকিয়া গ্রামের বর্মণ পাড়ার স্কুল পড়ুয়া ছাত্রীদের দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করত পাশ্ববর্তী টুকেরগাঁও গ্রামের কাশেম মিয়া, লাইট মিয়া, মুসা মিয়া, পাবেল মিয়া। এ নিয়ে চার মাস আগে টাকাটুকিয়া গ্রামে জামালগড়, রসুলপুর ও টুকেরগাঁও গ্রামের গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে সালিস হয়। ভবিষ্যতে এমন কাজ করবে না বলে সালিসে অঙ্গীকারও করে অভিযুক্তরা। পরে সেখানে তাদের কান ধরে উঠ-বস করানো হয়। তারপরও নানাভাবে বর্মণ পাড়ার মেয়েদের বিরক্ত করত তারা।

এদিকে, সামাজিক বিচারে অপমানের জের ধরে গতকাল বুধবার দুপুরে দেবেন্দ্র বর্মণের ছেলে সঞ্চিত বর্মনকে রাস্তায় একা পেয়ে মারধর করে কাশেম মিয়া, লাইট মিয়া, মুসা মিয়া, পাবেল মিয়া। তার চিৎকার শুনে পরিবারের লোকজন রক্ষা করতে গেলে তাদেরকেও মারধর করা হয়। এরপর টুকেরগাঁও গ্রামের ২০-২৫ জন টাকাটুকিয়া গ্রামের দেবেন্দ্র বর্মণের বাড়িতে হামলা চালায়।

হামলাকারীরা বাড়ির নারী ও পুরুষদের মারধর করে। এতে আহত হন- দেবেন্দ্র বর্মন (৭০), তার ছেলে বাছিন্দ্র বর্মণ (৫০), সত্যেন্দ্র বর্মণ (৪৫), সঞ্চিত বর্মণ (৩০) বাছিন্দ্র বর্মণের স্ত্রী বিউটি বর্মণ (৪৫), ছেলে বাবলু বর্মণ (১৭), শিপলু বর্মণ (১৫) ও তাদের আত্মীয় দেবল বর্মণ (২২)। হামলায় গুরুত্বরভাবে জখম হন বাছিন্দ্র বর্মণ, সঞ্চিত বর্মন, বিউটি বর্মন ও বাবলু বর্মণ। তাদেরকে তাৎক্ষণিক তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সঞ্চিত বর্মন তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছেন।

তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মির্জা রিয়াদ হাসান জানান, টাকাটুকিয়া গ্রামের চারজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তাদের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তিনজনকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ তরফদার জানান, টাকাটুকিয়া গ্রামের বর্মণ পাড়ার হামলা ও মারধরের ঘটনায় থানায় ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।






এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ





















© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
themesbazar_brekingnews1*5k