৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি



বিয়ে করলেন ‘সি ইউ নট ফর মাইন্ড’ বলা সেই ভাইরাল শ্যামল

কুশিয়ারা ভিউ ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২১

অবশেষে বিয়ে করলেন ‘হ্যাভ আ রিল্যাক্স, সি ইউ, নট ফর মাইন্ড’ উক্তির জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া সেই শ্যামল রায়।

মিঠাপুকুর উপজেলার পুঁটিমারী গ্রামের দীলিপ রায়ের মেয়ে দীপা রানীর সঙ্গে গতকাল বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) শ্যামল রায়ের বিয়ে হয়েছে। তার বিয়ের ছবিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য আব্দুল জব্বার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, শ্যামল রায় বাংলাদেশ রেলওয়ের একজন কর্মচারী। তিনি গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাংগা এলাকার নেপাল রায়ের ছেলে।
গাইবান্দার বামনডাঙ্গা রেল স্টেশনে তার ধারণ করা একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। সেখানে বলেছিলেন, ‘আমি সব সময় লেঙ্গুয়েজ ইংলিশে কথা বলি। ‘হ্যাভ আ রিল্যাক্স, সি ইউ, নট ফর মাইন্ড।’

রংপুর থেকে মিঠাপুকুরের ওই গ্রামে অনেকেই দেখতে এসেছিলেন শ্যামলকে। শ্যামল বিয়ে করতে মিঠাপুকুর গেলে সেখানে লোকজন তাকে ঘিরে ধরে সেলফি তোলার জন্য। শ্যামল অবশ্য কাউকে নিরাশ করেননি। সবার সঙ্গে হাসিমুখে সেলফি তুলেন। সবার আবদার পূরণ করেন।
ঠিক বিয়ের পিঁড়িতে বসার আগে অনেকে তাকে ঘিরে ধরে ছবি তোলে, শুধু তাই নয় বিয়ের আসরেও কয়েকজন ধরে বলতে বলে ‘সি ইউ নট ফর মাইন্ড।’ শ্যামল হাসিমুখেই বললেন ‘সি ইউ নট ফর মাইন্ড।’

 

গত বছর শ্যামল চন্দ্রের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। যেখানে প্রশ্নকর্তার জবাবে একপর্যায়ে শ্যামল বলেন, ‘হ্যাভি রিলাক্স, সি ইউ নট ফর মাইন্ড…’।

শ্যামল চন্দ্রের বাবার নাম নেপাল চন্দ্র। তিনি মাছ ব্যবসায়ী। মা শেফালি রানি গৃহিণী। তিন ভাইয়ের মধ্যে শ্যামল সবার বড়। ছোট ভাই কমল চন্দ্র ও রাজা চন্দ্র বাবার সঙ্গে মাছের ব্যবসা করেন।

শ্যামল চন্দ্র ২০০৫ সালে কাঠগড়া দ্বিমুখী উচ্চবিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ নিয়ে তিনি অকৃতকার্য হন। এরপর অর্থাভাবে আর পরীক্ষা দেওয়া হয়নি।
মাধ্যমিকে অকৃতকার্য হওয়ার পর গ্যাস লাইটারের ব্যবসা শুরু করেন শ্যামল। পাইকারিভাবে গ্যাস লাইটার কিনে দোকানে দোকানে বিক্রি করতেন। আয়ের টাকায় সংসার চলত না বলে ব্যবসা ছেড়ে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের হয়ে বামনডাঙ্গা রেলওয়ে স্টেশনে কাজ নেন তিনি। চার বছর ধরে সেই কাজই করছেন।

শ্যামল চন্দ্র বলেন, ‘ভাইরাল ভিডিওটি ২০২০ সালের ঈদুল ফিতরের আগের। স্বাভাবিকভাবেই নিজের কথা বলেছিলাম। কিন্তু এভাবে ভাইরাল হবে বুঝতে পারিনি।’
ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, শ্যামল চন্দ্র তার নিজের সম্পর্কে বলছেন। একপর্যায়ে প্রশ্নকর্তা জানতে চান, এখনো তিনি বিয়ে করছেন না কেন। তখন শ্যামল বলেন, ‘…ওয়াইফকে সময় দেওয়ার মতো সময় আমার বর্তমান নাই’।

তবে এখন সময় হলো কী করে? প্রশ্ন শুনে শ্যামল চন্দ্র বলেন, ‘বিধিনিষেধে গাড়ি (ট্রেন) চলাচল বন্ধ ছিল। বাড়িতেই বসে ছিলাম। পারিবারিকভাবেই বিয়ে আয়োজন করা হলো। আর বিয়ে তো করতেই হতো!’

 

 






এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ





















© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
themesbazar_brekingnews1*5k